গ্রামবাসীর সংবাদ সম্মেলন ওসমানীনগরে সংঘর্ষে ব্যবহৃত অস্ত্র উদ্ধার, আটক ৫ – News Portal 24
ঢাকাThursday , ৩ অগাস্ট ২০২৩

গ্রামবাসীর সংবাদ সম্মেলন ওসমানীনগরে সংঘর্ষে ব্যবহৃত অস্ত্র উদ্ধার, আটক ৫

ওসমানীনগর(সিলেট)প্রতিনিধি
অগাস্ট ৩, ২০২৩ ২:৪০ অপরাহ্ন
Link Copied!

গ্রামবাসীর সংবাদ সম্মেলন
ওসমানীনগরে সংঘর্ষে ব্যবহৃত
অস্ত্র উদ্ধার, আটক

সিলেটের ওসমানীনগরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সীমানার জায়গা নিয়ে বিরোধের জেরে সংঘর্ষের ঘটনায় ব্যবহৃত গুলিসহ দেশীয় তৈরি পাইপগান  ও ধারালোঅস্ত্র উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার মধ্য রাতে অভিযান চালিয়ে উপজেলার হামতনপুর গ্রামের মতিউর রহমানের বসত ঘরের পাশ থেকে অস্ত্রগুলো উদ্ধার করা হয়। এছাড়াও অভিযানকালে সংঘর্ষের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ৫জনকে আটক করেছে পুলিশ। এঘটনায় একটি অস্ত্র মামলা ও একটি মারামারি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

 

 

 

যে কারণে ঘটনার সূত্রপাত লিংকে দেখুন

https://publ.cc/kdzvZN

 

জানা যায়, বুধবার দুপুরে উপজেলার উমরপুর ইউনিয়নের হামতনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সীমানা নিয়ে বিরোধের জেরে সংঘর্ষের ঘটনার পর বুধবার রাতে অস্ত্র উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করে ওসমানীনগর থানা পুলিশ। অভিযানকালে মতিউর রহমানের ঘরের পাশ থেকে সংঘর্ষে ব্যবহৃত গুলিসহ দেশীয় তৈরি পাইপ গান, রামদা, লোহার পাইপ ও চাপাতি উদ্ধার করে পুলিশ। এছাড়া অভিযানকালে সংঘর্ষের ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে ৫ব্যক্তিকে আটক করা হয়। তবে ঘটনার মূলহোতা মতিউর রহমান পলাতক রয়েছে।
অস্ত্র উদ্ধার ও ৫ব্যক্তিকে আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে ওসমানীনগর থানার ওসি মাছুদুল আমিন বলেন, অস্ত্রধারী মতিউরকে গ্রেফতারের জন্য পুলিশি অভিযান অব্যাহত আছে এবং এঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।
এদিকে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে ওসমানীনগর উপজেলা প্রেসক্লাব কার্যালয়ে পূর্বঘোষিত সংবাদ সম্মেলন করেছে হামতনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটি ও গ্রাম প ায়েতের সদস্যরা। বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শহিদুর রহমান শিবলু লিখিত বক্তব্যে অভিযোগ করেন, মতিউর রহমান গংরা দীর্ঘ দিন ধরে বিদ্যালয়ের সীমানার জায়গা জোরপূর্বক দখল করে রেখেছে। সাম্প্রতিক সময়ে বিদ্যালয়ের সীমানার বেড়া উঠিয়ে সেখানে ময়লার ট্যাঙ্ক স্থাপন করে। এ বিষয় নিয়ে কথা বলায় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে মিথ্যে বানোয়াট অভিযোগ করে। জায়গা দখলের বিষয়টি উপজেলা প্রশাসনকে অবগত করা হলে আগামী ৭ আগস্ট ২পক্ষকে নিয়ে বসে সমাধান করার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন ছিল। কিন্তু এর আগেই সে বুধবার দুপুরে ফেসবুক লাইভে এসে হুমকি দিয়ে অস্ত্রসস্ত্রে সজ্জিত হয়ে বিদ্যালয়ের সামনে চলে আসে। এসময় শিক্ষক শিক্ষার্থীরা আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। এর প্রতিবাদ করলে মতিউর ও সঙ্গীরা আগ্নেয়াস্ত্রসহ দেশীয় অস্ত্র দিয়ে  গ্রামবাসীর ওপর হামলা চালিয়ে বেশ কয়েকজন আহত করে। সংবাদ সম্মেলনে উশৃঙ্খল মতিউর ও তার সহযোগীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে হামতনপুর গ্রামের অজিত সূত্রধর, আবদুল হামিদ, আনর আলী, হারুন মিয়া, মিলন মিয়া, হেমেন্দ্র সূত্রধর প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।