প্রয়াত সংসদ সদস্য গোলাপ মিঞা স্মৃতি স্মরণে ইফতার ও দোয়া মাহফিল – News Portal 24
ঢাকাSunday , ২৬ মার্চ ২০২৩

প্রয়াত সংসদ সদস্য গোলাপ মিঞা স্মৃতি স্মরণে ইফতার ও দোয়া মাহফিল

Link Copied!

বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর, মুক্তিযোদ্ধের অন্যতম সংগঠক, ভাষা সৈনিক, মরনোত্তর একুশে পদকপ্রাপ্ত ও তৎকালীন কিশোরগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য প্রয়াত এ. কে. এম. শামসুল হক গোলাপ মিঞা স্মৃতি স্মরণে প্রতিষ্ঠিত সংগঠন গোলাপ মিঞা স্মৃতি সংসদের উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে।

রবিবার (২৬ মার্চ) বিকেলে উপজেলার তারাকান্দি বাজার ঈদগাহ্ মাঠে ইফতার ও দোয়া মাহফিল আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু হয় আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম।

অনুষ্ঠানে গোলাপ মিঞা স্মৃতি সংসদ এর সভাপতি মোঃ শফিকুল ইসলাম শফিকের সভাপতিত্বে, সাধারণ সম্পাদক এটিএম খলিলুল্লাহ শাকিল এর সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন গোলাপ মিঞা স্মৃতি সংসদ এর উপদেষ্টা ও সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা এ. কে. এম. শামসুল হক গোলাপ মিঞার ছেলে একেএম দিদারুল হক।

এসময় ইফতার ও দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন পুলিশের সাবেক অতিরিক্ত ডিআইজি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল কাহার আকন্দ, ঢাকা বিশ্বিবদ্যালয় শাখা ছাত্র লীগের সাবেক সদস্য ও বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প কর্পোরেশনের সাবেক চেয়ারম্যান এ কে এম দেলোয়ার হোসেন (এফসি এমএ), পাকুন্দিয়া পৌর মেয়র নজরুল ইসলাম আকন্দ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট হুমায়ুন কবির, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু তাহের, উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মতিউর রহমান, ফজলুল হক বাচ্চু, আব্দুল হাকিম, চরফরাদী ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান, উপজেলা কৃষক লীগের সাবেক সভাপতি বাবুল আহমেদ, জাঙ্গালিয়া ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান সরকার শামীম আহমেদ, আব্দুল সাত্তার, উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি নাজমুল হক দেওয়ান, গোলাপ মিঞা স্মৃতি সংসদ এর সাংগঠনিক সম্পাদক সেফায়েত হোসেন মাসুম, অর্থ সম্পাদক মোঃ শামছুল আলম মাসুদ, দপ্তর সম্পাদক রাকিব ভুইয়া, তারাকান্দি উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি মোঃ হিরন মিয়া প্রমুখ।

এ কে এম শামসুল হক গোলাপ মিঞা কিশোরগঞ্জ জেলার পাকুন্দিয়া উপজেলার জাঙ্গালিয়া ইউনিয়নের তারাকান্দি গ্রামে ৪ মার্চ ১৯৪০ সালে জন্ম গ্রহন করেন। তিনি কিশোরগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, ভাষা সৈনিক ও মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ছিলেন। এ কে এম শামসুল হক গোলাপ মিঞা ভাষা আন্দোলনে বিশেষ অবদান রাখায় গত (১২ ফেব্রুয়ারি) সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে মরনোত্তর একুশে পদকপ্রাপ্ত হিসেবে ভূষিত হয়েছেন। মহান এই নেতা কে একুশে পদক প্রদান করাই গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছে গোলাপ মিয়া স্মৃতি সংসদের সদস্যবৃন্ধ।

পরিশেষে দেশ জাতি এবং মুসলিম উম্মাহর শান্তি এবং সমৃদ্ধি কামনায় বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।