বিচ্ছেদে নারীর চেয়ে পুরুষরা বেশি কষ্ট পায়, বলছে গবেষণা – News Portal 24
ঢাকাThursday , ৪ নভেম্বর ২০২১

বিচ্ছেদে নারীর চেয়ে পুরুষরা বেশি কষ্ট পায়, বলছে গবেষণা

নিউজ পোর্টাল ২৪
নভেম্বর ৪, ২০২১ ১:৩৭ অপরাহ্ন
Link Copied!

বিচ্ছেদ কথাটার সঙ্গে মিলে আছে বিষাদের সুর। একটি সম্পর্ক গড়তে অনেক সময় লাগলেও ভাঙতে কিন্তু মোটেই সময় নেয় না। অনেকের ধারণা বিচ্ছেদের পর নারীরাই বেশি কষ্ট পায়। এ ধারণা সম্পূর্ণ ভুল।

গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে, বিচ্ছেদ হলে নারীর চেয়ে বেশি ভেঙে পড়েন পুরুষরা। যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর ক্যারোলাইনার ওয়েক ফরেস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রুবিন সিমন পরিচালিত সম্প্রতি এক গবেষণায় জানা গেছে, নারী-পুরুষের সম্পর্কের মাধ্যমে পুরুষরাই বেশি উপকৃত হন।

বিচ্ছেদের ফলে নারীদের চেয়ে পুরুষরা বেশি কষ্ট পায়। তবে কেন। এ বিষয়ে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

আসুন জেনে নেই বিচ্ছেদের ফলে পুরুষরা কেন বেশি কষ্ট পায়।

আত্মসম্মান

পুরুষের বরাবরই আত্মসম্মানবোধ একটু বেশি। তার প্রিয় জিনিস হারিয়ে যাবে এটা কোনোভাবেই ঠিক নয়। মনোবিজ্ঞানীদের মতে, সম্পর্কে পুরুষদের মতানুযায়ী না চললে তারা মনঃক্ষুণ্ণ হন বেশি।  সম্পর্কের ক্ষেত্রে একজন পুরুষ যখন সিরিয়াস হন, তখন তিনি ভালোমন্দ উভয় দিক বিবেচনা করে চলেন। তাই যখন সম্পর্কে বিচ্ছেদ হয়, তখন মানসিকভাবে খুব ভেঙে পড়েন। পুরুষরা এটাকে তাদের পরাজয় বলে মনে করেন।

মানসিকভাবে ভেঙে পড়া

সম্পর্কে ব্যর্থ হলে পুরুষদের অহংকারবোধ ও আত্মবিশ্বাস প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে যায়। সম্পর্ক ভাঙার পর পুরুষরা সব মেয়েদেরই একইভাবে বিবেচনা করে। পরবর্তী সময়ে কোনো সম্পর্কে জড়ানোর ক্ষেত্রে তারা মন থেকে নয়, বরং মগজ দিয়ে সিদ্ধান্ত নেন। মানসিকভাবে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়।অনেক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলে।

মনের আবেগ লুকিয়ে রাখে

সম্পর্কের ক্ষেত্রে পুরুষরা সাধারণত তাদের আবেগ লুকিয়ে রাখেন। গবেষণা বলছে, নারীরা যেমন তাদের মনের কথা বন্ধু কিংবা পরিবারের মানুষের কাছে সহজে প্রকাশ করতে পারেন, একজন পুরুষ তা পারেন না। মনের কষ্ট মনেই চেপে রাখে।

সঙ্গীর প্রতি শক্তিশালী সংযুক্তি

সঙ্গীর সঙ্গে মানসিক ও শারীরিকভাবে সংযুক্ত হতে পুরুষরা অনেকটা সময় দেন সঙ্গীকে। তবে একবার যখন আবেগীয়ভাবে সঙ্গীর প্রতি আসক্ত হয়ে পড়েন তখন গভীরভাবেই আসক্ত হন একজন পুরুষ। তা প্রিয় সঙ্গীর কাছে  প্রতারিত হলে তা একদমই সহ্য করতে পারেন না পুরুষরা।