সময়ের আগেই ফুরিয়ে যাচ্ছে দিন, কেয়ামতের আলামত বলে দাবি ইসলাম বিশারদদের – News Portal 24
ঢাকাFriday , ২২ অক্টোবর ২০২১

সময়ের আগেই ফুরিয়ে যাচ্ছে দিন, কেয়ামতের আলামত বলে দাবি ইসলাম বিশারদদের

নিউজ পোর্টাল ২৪
অক্টোবর ২২, ২০২১ ১২:২৮ পূর্বাহ্ন
Link Copied!

পৃথিবীর প্রতিটি দিনের মেয়াদ ২৪ ঘণ্টার কম হচ্ছে বলে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। আর কারণ গত ৫০ বছরের তুলনার দ্রুতগতিতে ঘুরছে পৃথিবী। পৃথিবীর এই আবর্তনের গতি বা আহ্নিক গতি বাড়ার কারণে গ্রহটির প্রতিটি দিনের মেয়াদ এখন ২৪ ঘণ্টার কম।

ব্রিটিশ ট্যাবলয়েড ডেইলি মেইল এক প্রতিবেদনে জানায়, বিজ্ঞানীদের দেয়া তথ্য বিশ্লেষণ করে এই ঘটনার যথাযথ প্রমাণও মিলেছে।

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, পৃথিবীর আবর্তন স্বাভাবিকের চেয়ে দ্রুতগতিতে হওয়ার কারণেই বর্তমানে একটি দিনের দৈর্ঘ্য ২৪ ঘণ্টার চেয়ে ‘অতিসামান্য’ কম হতে শুরু করেছে। যা বছর বছর বেড়ে চলেছে। যেমন গত বছর ২০২০ সালে সবচেয়ে ছোট দিনের সংখ্যা ছিল ২৮টি। ১৯৬০ সালে পর থেকে যা সবচেয়ে বেশি। চলতি বছর ২০২১ সালেও ছোট দিনের সংখ্যা বাড়ছে।

সময় ও তারিখ অনুযায়ী, সূর্যের প্রতি গড় হিসাবে পৃথিবী প্রতি ৮৬ হাজার ৪০০ সেকেন্ডে একবারে ঘোরে, যা ২৪ ঘণ্টা বা একটি অর্থ সৌর দিনের সমান। বিজ্ঞানীরা ধারণা করছেন, ২০২১ সালের গড় দিনটি ৮৬ হাজার ৪০০ সেকেন্ডের চেয়ে ০.০৫ মিলি সেকেন্ড কম হবে। ১৯৬০ সাল থেকে দিনের দৈর্ঘ্যের অতি-সুনির্দিষ্ট রেকর্ড রেখে চলা পারমাণবিক ঘড়িগুলো পুরো বছর ধরে প্রায় ১৯ মিলি সেকেন্ডের ব্যবধান তৈরি করবে।

লাইভ সায়েন্সের একটি প্রতিবেদনে জানা যায়, রেকর্ডে সবচেয়ে দ্রুততম ২৮টা দিন দেখা যায় ২০২০ সালে। কারণ, ওই দিনগুলোতে পৃথিবী নিজের অক্ষের চারপাশে ঘূর্ণনগুলো গড়ের থেকে প্রায় মিলি সেকেন্ড সময় দ্রুত সম্পন্ন করে। পারমাণবিক ঘড়ির হিসাব অনুযায়ী, গত ৫০ বছর ধরে পৃথিবী একটি ঘূর্ণন সম্পন্ন করতে ২৪ ঘণ্টার (৮৬,৪০০ সেকেন্ড) চেয়ে কিছুটা কম সময় নিয়েছে।

ডেইল মেইলের প্রতিবেদনে জানায়, ১৯২০ সালের ২০ জুলাই পৃথিবীতে সবচেয়ে সংক্ষিপ্ত দিনটি রেকর্ড করা হয়েছিল (যেহেতু ওই দিনেই রেকর্ড শুরু হয়েছিল)। ওই দিনটি ছিল ২৪ ঘণ্টার চেয়ে ১.৪৬০২ মিলি সেকেন্ড কম। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০২০ সালের আগে সব থেকে ছোট দিন রেকর্ড হয়েছিল ২০০৫ সালে। তবে গত বছরের ১২ মাসে ২৮ বার সেই রেকর্ড ভেঙে গেছে।

এদিকে এ ঘটনাকে কেয়ামতের আলামত বলে দাবি করেছেন ইসলাম বিশারদরা। কেননা এক হাদিসে (তিরমিযী) বলা হয়েছে, নবী করিম (সা.) কেয়ামতের আলামতের আরেকটি উদাহরণ দিয়ে বলেছেন- সময় সংকুচিত হয়ে যাবে। বছর মাসের মতো আর মাস সপ্তাহের মতো হয়ে যাবে। আর সপ্তাহ হবে দিনের মতো। দিন হবে ঘণ্টার মতো।