পুত্র সন্তানের মা হয়েছেন চিত্র নায়িকা পপি, স্বামী মালয়েশিয়া প্রবাসী ব্যবসায়ী – News Portal 24
ঢাকাSaturday , ৩০ অক্টোবর ২০২১

পুত্র সন্তানের মা হয়েছেন চিত্র নায়িকা পপি, স্বামী মালয়েশিয়া প্রবাসী ব্যবসায়ী

নিউজ পোর্টাল ২৪
অক্টোবর ৩০, ২০২১ ১১:২৫ অপরাহ্ন
Link Copied!

“সাদিকা পারভিন পপি (জন্ম: ১০ সেপ্টেম্বর, ১৯৭৯) যিনি পপি নামে পরিচিত, বাংলাদেশী চলচ্চিত্র অভিনেত্রী ও মডেল। তিনি ১৯৯৭ সালে মনতাজুর রহমান আকবরের কুলি ছায়াছবিতে অভিনয়ের মধ্যদিয়ে চলচ্চিত্রে আবির্ভূত হন।”

চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা সাদিকা পারভিন পপি পুত্র সন্তানের মা হলেন। বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) রাজধানীর একটি হাসপাতালে সিজারের মাধ্যমে পৃথিবীতে এসেছে তার সন্তান।

যদিও ডাক্তারের দেয়া নির্ধারিত তারিখ ছিলো আগামী নভেম্বর। তার আগেই ভূমিষ্ঠ হয়েছে তার সন্তান। বর্তমানে মা-ছেলে দুজনই সুস্থ আছেন।

বৃহস্পতিবার রাত থেকেই এমন গুঞ্জন চলচ্চিত্রপাড়ায়। শনিবার সারাদিন এ আলোচনা মুখর।তবে বিষয়টি নিয়ে এই অভিনেত্রীর পক্ষ বা তার পরিবার পক্ষ থেকে কিছুই জানানো হয়নি।

এ ব্যাপারে জানতে পপির মুঠোফোন নাম্বারে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তার ব্যবহৃত নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়।

এ সময়ের পরিচালক সমিতির নেতা ও তরুন পরিচালক বলেন, আমিও জেনেছি তিনি মা হয়েছেন। বর্তমানে মা-ছেলে দুজনই ভালো আছেন। যতদূর জানি ডাক্তারের দেয়া তারিখ অনুযায়ী আগামী নভেম্বর তার সন্তান জন্ম দেয়ার দিন ছিল। নির্ধারিত তারিখের আগেই সন্তান জন্ম দিয়েছেন তিনি। এর আগে আমরা জেনেছি ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা পপি। তার অন্তঃসত্ত্বার খবরটি শতভাগ সত্য।

এদিকে, দীর্ঘদিন ধরেই আড়ালে রয়েছেন পপি। আড়ালে থাকার কারণ হিসেবে জানা যায়, তিনি বিয়ে করে সংসার নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। পপির মা’র সাথে ৩ বছর ধরে বনিবনা নেই। শুধু বাবা আমির হোসেনের সাথে যোগাযোগ রয়েছে। গত সপ্তাহে বাবাকে নিয়ে ধানমন্ডিস্থ ইবনেসিনা হাসপাতালে ডাক্তার দেখাতে যান বলে জানা গেছে। এদিকে, পপির বাবার মেঠোফোনে যোগাযোগ করলে রিং বাজলেও ধরছেন না তিনি। তার ছোটবোনের মেঠোফোন নম্বারও বন্ধ রয়েছে।

শুধু তাই নয় , মালয়েশিয়া প্রবাসী ব্যবসায়ী স্বামীর কারণেই সিনেমা ছেড়েছেন তিনি। আর কখনও তাকে অভিনয়ে দেখা যাবে না, এমন খবরও চাউর হয়েছে। নানা সূত্রে এসব গুঞ্জন আকারেই ছড়িয়েছে শোবিজে।

উল্লেখ, মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত ‘কুলি’ সিনেমায় অভিনয়ের মাধ্যমে ১৯৯৭ সালে বাংলা চলচ্চিত্রে এই নায়িকার অভিষেক হয়। এখন পর্যন্ত প্রায় দেড় শতাধিক সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। অভিনয়ের স্বীকৃতিস্বরূপ ৩বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারসহ অসংখ্য পুরস্কার পেয়েছেন পপি।

পপির আড়াল থাকার কারণে আটকে আছে কয়েকটি সিনেমা। তার মধ্যে রয়েছে- রাজু আলীম ও মাসুমা তানি পরিচালিত ‘ভালোবাসার প্রজাপতি’ ও আরিফুর জামান আরিফের ‘কাঠগড়ায় শরৎচন্দ্র’ সিনেমা।