চালককে হত্যা করে ভ্যান বিক্রির ১০ হাজার টাকার মাদক সেবন – News Portal 24
ঢাকাSaturday , ৩০ অক্টোবর ২০২১

চালককে হত্যা করে ভ্যান বিক্রির ১০ হাজার টাকার মাদক সেবন

নিউজ পোর্টাল ২৪
অক্টোবর ৩০, ২০২১ ৫:০৮ পূর্বাহ্ন
Link Copied!

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় গান শুনতে যাওয়ার কথা বলে পারভেজ নামে এক ভ্যানচালককে হত্যা করেছেন দুই মাদকসেবী। এ সময় তারা পারভেজের ভ্যানটি নিয়ে মাত্র ১০ হাজার ১০০ টাকায় বিক্রি করেন।

ওই রাতেই তারা ওই টাকা নেশা করে ও জুয়া খেলে উড়িয়ে ফেলেন। মূলত নেশা করার টাকার জন্যই তারা পারভেজকে হত্যা করেছেন। এমনই চাঞ্চল্যকর তথ্য বের হয়ে এসেছে পারভেজ হত্যাকাণ্ডে। লাশ উদ্ধারের দুই সপ্তাহ পর নিহতের দুই বন্ধুকে গ্রেপ্তারের পর হত্যাকাণ্ডের এই রহস্য বের হয়ে আসে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ১৩ অক্টোবর সকালে শিবচরের বন্দরখোলার ইউনিয়নের রহমতউল্লাহ হাওলাদারকান্দি শ্বশুর বাড়ি থেকে প্রতিদিনের মতো ভ্যান নিয়ে বের হয় একই উপজেলার চরজানাজাত ইউনিয়নের ফকির রনাই মুন্সিকান্দি গ্রামের মো. বাবুল ফকিরের ছেলে পারভেজ ফকির (২৪)। রাতেও পারভেজ বাড়িতে না আসায় পরিবারের সদস্যরা অনেক খোঁজাখুঁজি করেও কোনো লাভ হয়নি।

পরদিন ফরিদপুরের ভাঙ্গার নাসিরাবাদ ইউনিয়নের গজারিয়া এলাকার আড়িয়াল খা নদের তীরে ধান ক্ষেত থেকে পারভেজের লাশ উদ্ধার করে থানা পুলিশ। প্রথমে অজ্ঞাতনামা হিসেবে থাকলেও পরে লাশটি শনাক্ত হয়। এরপর তদন্তে নামে পুলিশ। ১৪ দিন টানা তদন্তের পর বেরিয়ে আসে এ হত্যাকাণ্ডের রহস্য। এ হত্যায় জড়িত তার বন্ধুরাই।

বৃহস্পতিবার ভাঙ্গা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আবুল কালাম আজাদের নেতৃত্বে শিবচরের সন্ন্যাসীরচর থেকে গ্রেপ্তার করা হয় হৃদয় মাদবর ও আজিজুল মুন্সী নামের দুই যুবককে। দুজনই হত্যাকাণ্ডের শিকার পারভেজ ফকিরের বন্ধু। হৃদয় ও আজিজুল মাদকসেবী ও ব্যবসায়ী। ১৩ অক্টোবর গান শোনার কথা বলে এ দুজন পারভেজকে ভাঙ্গায় নিয়ে যায়।

সেখানে নিয়ে কোল্ড ড্রিংকসের সঙ্গে নেশাদ্রব্য মিশেয়ে খাওয়ানো হয়। পরে পারভেজকে ভাঙ্গার নাসিরাবাদ ইউনিয়নের গজারিয়া এলাকার আড়িয়াল খা নদের ধান ক্ষেতে নিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন। পরে হত্যাকারীরা পারভেজের ভ্যানটি স্থানীয় একটি বাজারে ১০ হাজার ১০০ টাকায় বিক্রি করে। ওই রাতেই তারা টাকা জুয়া খেলে ও মাদক সেবন করে নষ্ট করে ফেলেন। এদিকে পরদিন পুলিশ পারভেজের লাশ উদ্ধার করে।

নিহত পারভেজের স্ত্রী রোজিনা আক্তার বলেন, আমার স্বামীকে যারা হত্যা করেছে আমি তাদের কঠোর বিচার চাই।

এসআই আবুল কালাম আজাদ বলেন, লাশটি পাওয়ার পর আমরা তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় তদন্ত শুরু করি। প্রথমেই খোয়া যাওয়া ভ্যানটি উদ্ধার করি। পরে হত্যাকারী দুজনকেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা হত্যার দায় স্বীকার করেছে। মূলত নেশার জন্য ভ্যান বিক্রির টাকা লুটের জন্যই তারা পারভেজকে হত্যা করেছে বলে জানিয়েছে। ভ্যান বিক্রির ওই টাকা এক রাতেই তারা নেশা করে ও জুয়া খেলে উড়িয়ে ফেলেছে।