সম্পর্কের দৃঢ়তা যাচাইয়ে অভিনব পদ্ধতি: একই হাতকড়ায় পার ১২৩ দিন, বাঁধন খুলতেই বিচ্ছেদ! – News Portal 24
ঢাকাSaturday , ১৯ জুন ২০২১

সম্পর্কের দৃঢ়তা যাচাইয়ে অভিনব পদ্ধতি: একই হাতকড়ায় পার ১২৩ দিন, বাঁধন খুলতেই বিচ্ছেদ!

নিউজ পোর্টাল ২৪
জুন ১৯, ২০২১ ৮:৫৬ পূর্বাহ্ন
Link Copied!

অনলাইন ডেস্ক:: নিজেদের মধ্যকার ভালোবাসার সম্পর্ক কতটা দৃঢ় তা পরীক্ষা করতে কত অদ্ভুতই সব কাণ্ডই না করেন প্রেমিক-প্রেমিকারা। এবার নিজেদের সম্পর্কের দৃঢ়তা যাচাই করতে অভিনব এক পদ্ধতি বেছে নেন এক যুগল।

একই হাতকড়ায় নিজেদের বেঁধে দেন ভালোবাসার পরীক্ষা। প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী টানা ১২৩ দিন হাতকড়া বাঁধা অস্থাতেই দিন কাটান দুইজন। কিন্তু হাতকড়া খোলার সঙ্গে সঙ্গে তারা বিচ্ছেদের পথ বেছে নেন।

ঘটনাটি ইউক্রেনের। জানা গেছে, খারকিভের বাসিন্দা ভিক্টোরিয়া পুসতোভিতোভা (২৯) এবং আলেকজান্ডার কাডলে (৩৩) নিজেদের ভালোসার দৃঢ়তা পরীক্ষা করতে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে একটানা ১২৩ দিন একসঙ্গে থাকার প্রতিতশ্রুতি নিয়েছিলেন।

সেজন্য দুজনের হাত বাঁধা হয়েছিল একই হাতকড়ায়। এ সময় গোসল-খাওয়া, রান্না করা, বাইরে যাওয়া সব কিছুই তারা একসঙ্গে করেছেন। যদিও শেষরক্ষা আর হয়নি। যেখানে তারা হাতকড়া বেঁধে একসঙ্গে থাকার প্রতিশ্রুতি নিয়েছিলেন সেই কিয়েভের ইউনিটি মনুমেন্টের সামনেই হাতকড়াটি খুলতেই দুজনে আলাদা হওয়ার কথা জানান। যদিও নিজেদের সিদ্ধান্তের স্বপক্ষে যুক্তিও দিয়েছেন ওই যুগল।

ভিক্টোরিয়া বলেন, “আমি স্বাধীন জীবনযাপনই করতেই চাই। একজন স্বাধীন মানুষ হিসেবেই এগিয়ে যেতে চাই। শেষপর্যন্ত বন্ধন মুক্ত হয়ে ভালই লাগছে।”

এদিকে, আলেকজান্ডার ইনস্টগ্রামে তাদেরকে যারা সমর্থন করেছেন তাদের সবাইকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, আমাদের সমর্থন দেওয়ার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ।

তিনি আরও বলেন, “আমরা এখন একে-অপরের থেকে অনেকটাই দূরে থাকি। ভিকা নিজের আগের জীবনে ফিরে যেতে চাইছিল। আমরা চেষ্টা করতাম যাতে মনমালিন্য বা ঝগড়া না হয়। কিন্তু শেষপর্যন্ত  জগড়ায় জড়িয়েই পড়তাম। একজনের কোনও অভ্যাস অনেকসময়ই আরেকজনের পছন্দ হত না। যদিও এখন আমরা দুজনেই খুশী। আর এই অভিজ্ঞতাটাও আমাদের জন্য খুবই ভালো ছিল।” সূত্র: টাইমস নাউ