মৌলভীবাজারে পেট জোড়ালাগা জন্মগত ত্রুটি নিয়ে জমজ শিশুর জন্ম – News Portal 24
ঢাকাThursday , ৬ মে ২০২১

মৌলভীবাজারে পেট জোড়ালাগা জন্মগত ত্রুটি নিয়ে জমজ শিশুর জন্ম

নিউজ পোর্টাল ২৪
মে ৬, ২০২১ ৫:৩০ অপরাহ্ন
Link Copied!

নিউজ পোর্টাল ২৪ ডেস্ক:: মৌলভীবাজারের একটি বেসরকারি ক্লিনিকে জোড়া লাগানো যমজ মেয়ে শিশু জন্ম নিয়েছে। ‘Thoraco-omphalopagus conjoined twin’-নামক জন্মগত ত্রুটি নিয়ে জন্মগ্রহণ করেছে যমজ শিশুটি।

জেলার জান্নাত প্রাইভেট হাসপাতালে বুধবার রাত ১১টার দিকে শিশু দুটির জন্ম দেন তাহমিনা বেগম (২৫) নামে এক নারী। শিশু দুটির বাবা জুয়েল আহমদ কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর ইউনিয়নের শমশেরনগরের বাসিন্দা। তিনি পেশায় একজন পান দোকানদার।

হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. শামীম আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘বুধবার বিকেলে জুয়েল তার স্ত্রীকে এখানে ভর্তি করান। পরে রাত ১১টার দিকে বিশেষজ্ঞ ডা. ফারজানা হক পর্ণা সিজারের মাধ্যমে সন্তান দুটির ভূমিষ্ঠ করান। ভূমিষ্ঠের পর দেখা যায়, শিশু দুটির হাত-পা, মাথা আলাদা হলেও বুক ও পেট একটাই। বুক ও পেটের উপরিভাগ একসাথে জোড়া লাগানো। বাচ্চা দুটির ওজন সাড়ে তিন কেজি।’

বর্তমানে শিশু দুটি সুস্থ আছে। ওইদিন রাতেই শিশু বিশেষজ্ঞ ডাক্তার এম এম হককে দেখানো হয়েছে। বর্তমানে তাদের ঢাকায় জাতীয় শিশু হাসপাতালে ভর্তি করার জন্য পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

যমজ শিশুর বাবা জুয়েল আহমদ বৃহস্পতিবার রাতে বলেন, ‘আমার বাচ্চা দুটিকে বাঁচাতে হলে ঢাকায় জাতীয় শিশু হাসপাতালের সার্জারি বিভাগে ভর্তি করার পরামর্শ দিয়েছেন ডাক্তাররা। আমি একজন পান দোকানি। ঢাকায় নিয়ে উন্নত চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন করা তার পক্ষে সম্ভব না। এজন্য তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সমাজের বিত্তবানদের কাছে সহযোগিতা চেয়েছেন।’

জুয়েল মিয়া জানান, ‘তিনি ফুটপাতে পান দোকান বসিয়ে ব্যবসা করেন। মা তাকলিমা বেগম গৃহিনী। তাদের বাড়ি কমলগঞ্জ উপজেলার সিঙ্গরাউলি গ্রামে। পরিবারে তার এক বোন ও ৫ বছরের আরেকটি মেয়ে সন্তান রয়েছে।’

জান্নাত প্রাইভেট হাসপাতালে মেডিকেল অফিসার ডাঃ শামীম আলম বলেন, ‘চিকিৎসা বিজ্ঞানের পরিভাষায় এটিকে ‘ক্রেনিয় পেগাজ’ বলে। যমজ শিশুরা সুস্থ রয়েছে। পরীক্ষা নিরীক্ষা করে দেখতে হবে বাচ্চা দুটির হাড় এবং পাকস্থলী আলাদা কি না। এগুলো আলাদা হলে অস্ত্রোপচার করে তাদের পৃথক করা সম্ভব। তবে যত দ্রুত সম্ভব জাতীয় শিশু হাসপাতালে গিয়ে বিশেষজ্ঞদের সহযোগিতা নিলে বাচ্চাদের জন্য ভালো হবে।’ সূত্র: অনলাইন মাধ্যম।